অনলাইন ডেস্কঃ কোরবানি দিতে গিয়ে আহত হয়ে রাজধানীসহ আশপাশের জেলার শতাধিক লোক এসে চিকিৎসা নিচ্ছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে।

প্রতি বছরই কোরবানি দেওয়ার সময় অসচেতনতার কারণে অনেকে আহত হন।

এবারও এর ব্যতিক্রম নয়। কোরবানির দেওয়ার সময় চাকু দিয়ে কারো হাত, কারো পা এমনকি কারও শরীরের বিভিন্ন অংশ কেটে যায়। অথবা কোরবানি দিতে গিয়ে গরুর শিংয়ের আঘাত পেয়ে অনেকে আহত হয়েছেন।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত রাজধানীসহ তার আশেপাশের এলাকা থেকে কোরবানির দিতে গিয়ে অসাবধানতাবশত প্রায় শতাধিক মানুষ আহত হয়ে ঢামেকে চিকিৎসা নিচ্ছে।

ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সকাল ৮ সাড়ে থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত প্রায় শতাধিক লোক কোরবানি দেওয়ার সময় আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে দিনভর এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। তবে বিকালের পরে আহতের সংখ্যা কিছুটা কমে যেতে পারে। এ পর্যন্ত আহতদের মধ্যে কারো অবস্থা গুরুতর নয়।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ পুলিশ ক্যাম্পের (এএসআই) আব্দুল খান গণমাধ্যম জানান, সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১১টা পর্যন্ত রাজধানীসহ আশেপাশে এলাকা থেকে আনুমানিক শতাধিক লোক কোরবানি দেওয়ার সময় আহত হয়ে ঢামেকে চিকিৎসা নিচ্ছে। কারো হাত, কারো পা এমনকি কারো শরীরের বিভিন্ন অংশ কেটে যায়। অথবা কোরবানি দিতে গিয়ে গরুর শিংয়ের আঘাত পেয়ে অনেকে আহত হয়ে ঢামেক হাসপাতালে ভিড় করছেন। তবে এখন পর্যন্ত আহত হয়ে যারা আসছেন কেউই গুরুতর নয়। সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here