অনলাইন ডেস্কঃ ঢাকার নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীরা আগামীকাল বৃহস্পতিবার দোকান খুলতে চান। আজ বুধবার নিউ মার্কেট এলাকার আশপাশের বিপণীবিতানগুলোর কিছু দোকান খুললেও নিউ মার্কেটের কোনো দোকান খোলেনি। সারা দিন এ এলাকার পরিস্থিতি শান্ত থাকলেও বিকেল পাঁচটার দিকে ঢাকা কলেজ এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণের পর এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এরপর আর দোকান খোলেননি নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীরা।

গত সোমবার মধ্যরাতে নিউমার্কেটের দোকানমালিক ও কর্মচারীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সংঘর্ষ হয়। এর জেরে গতকাল মঙ্গলবার দিনভর ওই এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে এক পথচারী নিহত হন। আহত হন আরও অনেকে। গতকাল রাত সাড়ে ১০টার দিকে দুই পক্ষ সড়ক ছেড়ে যাওয়ার পর ওই এলাকায় যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত নিউমার্কেটের দোকান মালিক ও কর্মচারী এবং ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের কেউ রাস্তায় নামেননি। এই পরিস্থিতিতে বিকেলে ঢাকা নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন দোকান খোলার ঘোষণা দিয়েছিলেন। এরপর আশপাশের মার্কেটগুলোর দোকান খুলতে শুরু করে।

কিন্তু বিকেল পাঁচটার দিকে ঢাকা কলেজের পাশে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ হয়। এরপর যান চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যায়। ককটেল বিস্ফোরণের পর ঢাকা কলেজ থেকে ৬০ থেকে ৭০ জনের একটি দল বের হয়ে আসে। পরে পুলিশের অনুরোধ ঢাকা কলেজের শিক্ষকেরা এসে শিক্ষার্থীদের ভেতরে নিয়ে যান। এ ঘটনার আধা ঘণ্টা পর এ সড়কে আবার যানবাহন চলাচল শুরু হয়।

তবে নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের আর দোকান খোলা হয়নি। সন্ধ্যা সাতটার দিকে নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন প্রথম আলোকে বলেন, আশপাশের অন্যান্য বিপণীবিতান খুললেও নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীরা এখনো দোকানপাট খোলেনি। নিউমার্কেটের চারটি প্রধান ফটক এখনও বন্ধ আছে। এখন মার্কেটের দোকানগুলো পরিষ্কার ও গোছগাছ করা হচ্ছে। সূত্রঃ প্রথম আলো

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here