অনলাইন ডেস্কঃ বলিউডের আলোচিত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত আবারও সোশ্যাল মিডিয়ার ওপর রেগে গেলেন। এর আগে টুইটার অ্যাকাউন্ট বারবার ব্লক হওয়ায় রেগে গিয়ে সেটি বন্ধ করে দিয়েছেন এ অভিনত্রী।

টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার সময় কঙ্গনা অভিযোগ করেছিলেন, ‘শ্বেতাঙ্গ বলেই একজন ভারতীয়র সঙ্গে এমন ব্যবহার করা হচ্ছে। ’ এবার প্রায় একই ভাষায় ইনস্টাগ্রামের ওপর রাগ প্রকাশ করছেন এ অভিনেত্রী।

আসছে সপ্তাহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে কঙ্গনা অভিনীত ‘থালাইভি’ নামের সিনেমা। ভারতের তামিলনাড়ুর সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার জীবন নিয়ে সাজানো হয়েছে সিনেমাটির চিত্রনাট্য। নায়িকা প্রধান এই সিনেমার ট্রেলার গত এক সপ্তাহেও নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে শেয়ার করতে পারেননি কঙ্গনা।

ইনস্টাগ্রামের ভারতীয় শাখার পক্ষ থেকে তাকে জানানো হয়েছে, ‘তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের মালিক তিনি নন, ইনস্টাগ্রাম সংস্থা। কারণ তার প্রোফাইলটি ভেরিফায়েড। তাই অন্য কোনো সংস্থার বাণিজ্যিক বিষয় এতে শেয়ার করতে পারবেন না। ’

এরপরেই ক্ষেপে গিয়ে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘আপনাদের ভারতীয় প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন কোনো সংস্থার বাণিজ্যিক বিষয় শেয়ারের জন্য তাদের প্রধান অফিসের সম্মতি লাগবে। এক সপ্তাহ হতে চললো, মনে হচ্ছে আমি যেন কয়েকজন মানুষের ক্রীতদাস। ভালো চান তো ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি মার্কা ব্যবহার বন্ধ করুন। ’

অনেক ভক্তদের প্রশ্ন- এর আগে টুইটার ছেড়েছেন কঙ্গনা, এবারও কি অভিমান করে ইনস্টাগ্রাম ছেড়েও চলে যাবেন তিনি? এর উত্তর সময়ই বলে দেবে।

প্রসঙ্গত, ‘থালাইভি’ সিনেমার চিত্রনাট্য লিখেছেন কেভি বিজয়েন্দ্র প্রসাদ। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন এএল বিজয়। একই সঙ্গে হিন্দি, কন্নর, তেলেগু, মালায়ালাম ভাষাতে মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

সম্প্রতি কঙ্গনা তার ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন যে, আমি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে নর্দমার মতো ভাবি। সব চকচকে জিনিস সোনা নয়। আমার প্রযোজনা সংস্থায় তৈরি হচ্ছে ‘টিকু ওয়েডস সেরু’ ছবিতে বলিউডের সব নোংরা দিকের পর্দা ফাঁস করব। এই ইন্ডাস্ট্রিতে দৃঢ়তার প্রয়োজন রয়েছে। সঠিক মূল্যবোধের প্রয়োজন আছে। সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here