অনলাইন ডেস্কঃ ঢাকায় ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সি শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা দেওয়ার কার্যক্রম ১ নভেম্বর থেকে শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, বুধবার ৫০ লাখ টিকা এসেছে। হাতে দুই কোটি টিকা আছে। ছাত্রছাত্রীদের টিকা দেওয়ার কার্যক্রম ১ তারিখ থেকে শুরু করা যাবে।  প্রথমে ঢাকায় ১২টি কেন্দ্রে টিকা দিয়ে এ কার্যক্রম শুরু করা হবে।  একটু সময় নিয়ে সারা দেশেই শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হবে। বর্তমান সক্ষমতা অনুযায়ী প্রতি দিন ৪০ হাজার টিকা দেওয়া যাবে।

১২ থেকে ১৭ বয়সি শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রতিদিন ৪০ হাজার শিশুকে টিকা দিতে পারবে বলে জানান মন্ত্রী।

নভেম্বরে ফাইজারের আরও ৩৫ লাখ  ডোজ টিকা দেশে আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

গত ১৪ অক্টোবর মানিকগঞ্জের কয়েকটি স্কুলের ১২০ শিক্ষার্থীকে পরীক্ষামূলকভাবে ফাইজারের টিকার প্রথম ডোজও দেওয়া হয়। তাদের কারও কোনো সমস্যা হয়নি বলে সরকারের তরফ থেকে ইতোমধ্যে জানানো হয়েছে।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।  এর ১০ দিন পর প্রথম মৃত্যু হয়।  চলতি বছরের মার্চে এসে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ দেখা দেয়।  আগস্টের শুরুর দিক থেকে সংক্রমণে নিম্নমুখী প্রবণতা শুরু হয়। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here